logo

মঙ্গলবার ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ - ৫ই মাঘ, ১৪২৭ - ৫ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনাম

বোয়ালখালীর গোমদন্ডী ফুলতলের নির্ধারিত সিএনজি অটো রিক্সা স্টেশনটি না সরানোর দাবী
৮ নভেম্বর, ২০২০

বিশেষ প্রতিবেদক ::২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে সাধারণ জনগণ ও পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের যাতায়তের সুবিধার্থে গোমদন্ডী ফুলতল সিএনজি সমিতির বরাবরে গোমদন্ডী ফুলতল হতে বানু মেম্বার টেক পর্যন্ত সিএনজি সার্ভিস চালু করার জন্য একটি গণস্বাক্ষর সম্বলিত পত্র প্রেরণ করেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ওই পত্রের পরিপ্রেক্ষিতে গোমদন্ডী ফুলতল সিএনজি সমিতি বিষয়টি অবহিত করে তৎকালীন উপজেলা র্নিাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি পত্র প্রেরণ করেন। পত্রের আলোকে উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় যানজট নিরসনে অন্যান্য স্থানের ন্যায় গোমদন্ডী ফুলতল এলাকায় আরকানের সড়কের পাশে একটি খালী জায়গায় সিএনজি স্টেশন স্থাপন করার জন্য জায়গা নির্ধারণ করে দিয়ে সেখানে সিএনজির জন্য নির্ধারিত স্থান লিখে একটি সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে দেন ইউএনও।


সেই সময়ের আইন-শৃঙ্খলা কমিটি কর্তৃক সিএনজি স্টেশনের জন্য স্থান নির্ধারণ করে দেয়ার বিষয়টি ইউএনও কর্তৃক সাক্ষরিত পত্র সদয় অবগতির জন্য অনুলিপি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম-৮ আসনের সাংসদ, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, চট্টগ্রাম পুলিশ সুপার, চট্টগ্রাম দোহাজারী ইউনিট সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ও বোয়ালখালী উপজেলা চেয়ারম্যানকে দেয়া হয়।
কিন্তু হঠাৎ ২০২০ সালে এসে প্রায় ৫ বছর পর সিএনজি স্টেশনের নির্ধারিত জায়গায় উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক কাচা বাজার করার চিন্তা-ভাবনার কথা শুনে আকাশ ভেঙ্গে পড়ে সিএনজি সমিতির নেতৃবৃন্দ ও চালকদের উপর।

 

সমিতির নেতৃবৃন্দ শতশত চালক-হেলপার, সাধারণ জনগণ, পশ্চিম গোমদন্ডী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও যানজটের বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে সুবিবেচনাপূর্বক কাচা বাজারটি গোমদন্ডী ফুলতল কালাম মাকের্টের পাশে সরকারী খাস জায়গায় হস্তান্তরের জোর দাবী জানান।
অপরদিকে সিএনজি স্টেশনের পাশে অবস্থিত আর.এস সুত্রে ক্রয় ও বি.এস সুত্রে সরকার থেকে লিজমূলে মালিক শেখ আহমদ প্রকাশ-শুক্কুর বলেন, তাদের চায়ের দোকান উচ্ছেদ করে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক কাচা বাজার স্থাপনের বিষয়টি প্রচার হওয়ার পর চোখে-মুখে অন্ধকার দেখছি।
আমার দাদা, আমার বাবা এবং সর্বশেষ আমরা ৩/৪ভাই মিলে যুগ যুগ ধরে গোমদন্ডী ফুলতল এলাকার ওই স্থানে চায়ের দোকান করে জীবন নির্বাহ করে আসছি। বর্তমানে আমরা তিনভাই ছোট এই চায়ের দোকানটি করে দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির এই সময়ে কোনো রকম দিনাতিপাত করছি।
দোকানটি বন্ধ করে দেয়া হলেও বউ-বাচ্চা নিয়ে পথে বসা ছাড়া আমাদের আর কোনো উপায় থাকবে না। তাই দোকান উচ্ছেদ করে কাচা বাজার বসানো সিদ্ধান্তটি সুবিবেচনার জন্য চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য, উপজেলা প্রশাসন, সড়ক ও জনপদ বিভাগের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।
শেখ আহমদ আরো জানান, আর.এস মূলে জায়গার মালিকানা এবং বি.এস খতিয়ানে ভুলবশত খাস হয়ে যাওয়ায় জায়গাটি নিয়ে পটিয়া দেওয়ানী আদালতে একাধিক মামলা চলমান রয়েছে।

সর্বশেষ খবর

আরো খবর

আজকের সংবাদের প্রচারিত কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by SaraBpo