logo

শুক্রবার ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ - ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ - ৭ই সফর, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনাম

মাদ্রাসার দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা অভিযোগ
২৬ এপ্রিল, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি থানাধীন জালালাবাদ তালিমুল কোরআন মাদ্রাসা দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা অভিযোগ উঠেছে। পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ওই ছাত্রীর বাসায় গিয়ে সাকসেস ও মনের তৃপ্তি মিটিয়েছেন শিক্ষক বেলাল হোসাইন।

রক্ষকই হয়ে উঠেছেন ভক্ষক নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানা ধীন জালালাবাদ মাদ্রাসা নামে পরিচিত তালিমুল কোরআন মাদ্রাসার দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে উঠেছে ছাত্রীদের যৌন নিপীড়নের গুরুতর অভিযোগ‌। যেখানে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে তারই বলিষ্ঠ উদ্যোগ নেওয়ার কথা, সেখানে তিনি নিজেই সন্তানতুল্য ছাত্রীদের বিভিন্ন প্রলোভনে যৌন হয়রানি করে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে। ছাত্রী, শিক্ষক, মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ, কর্মচারী সকলেই বিষয়টি জানেন, তবে কেউই প্রতিবাদ করার সাহস পায় না । ওই মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা হাফেজ তৈয়ব হুজুরকে সবাই ভয়পান, কারণ তৈয়বের হাত অনেক লম্বা বলে জানান স্থানীয়রা।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার উপ পরিদর্শক গোলাম মোহাম্মদ নাসিম বলেন, গত ১৭ এপ্রিল পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী তাছকিয়া ফাতেমা যৌন হয়রানির শিকার হন, পরে তাছকিয়া বাবা আইয়ুব আলী চৌধুরী বায়েজিদ বোস্তামী থানায় একটি অভিযোগ করেন অভিযোগটি তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া যায়। পরে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে একটি মামলা করেন মামলায় এজাহারভুক্ত এক নাম্বার আসামি মোহাম্মদ বেলাল হোসেনকে আমরা গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। দুই নম্বর আসামিকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান গোলাম মোহাম্মদ নাসিম।

ভুক্তভোগী পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী তাছকিয়া ফাতেমার বাবা বাদী হয়ে বায়েজিদ বোস্তামী থানা একটি মামলা দায়ের করেন ১৭,০৪,২০২০ইং তারিখ। মামলা এজাহার এক নম্বর আসামি মোহাম্মদ বেলাল হোসেন বাহারছড়া পূর্ব রতনপুর মৃত মহসিন আলীর ছেলে জানা যায়, মামলার এজাহার ভূক্ত দুই নম্বর আসামি মোহাম্মদ আবদুল মাবুদ বাঁশখালী চোকিদার বাড়ি মৃত জাকারিয়া ছেলে আব্দুল মাবুদ বলে জানা যায় মামলার এজাহার থেকে।

বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি সহ নানা রকম ভয় বৃত্তি প্রর্ধষন করছেন। মামলা তুলে নেওয়ার জন্য, মামলা তুলে না নিলে তাছকিয়া ও তার বাবাকে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি-ধামকি দিয়ে এলাকাছাড়া করবেন হাফেজ তৈয়ব বলে জানান ভূক্তভোগীর বাবা আইয়ুব আলী চৌধুরী।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায় মহামারী করোনা ভাইরাস এ কারনে মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় তাছকিয়া তার নিজ বাসা চলেযান। অবশেষে বাসায় গিয়ে রক্ষা পেল না শিক্ষক বেলাল হোসেন এর হাত থেকে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী তাছকিয়া ফাতেমা। গত ২৬,০৩,২০২০ইং দুপুর অনুমানিক তিন ঘটিকার সময় তাছকিয়া ফাতেমার তার বাবা-মা ব্যক্তিগত কাজে বাসার বাহিরে গিয়েছিল, ঠিক ওই সময় মামলার এজাহারভুক্ত এক নম্বর আসামি বেলাল হোসাইন তাছকিয়ার বাসায় ঢুকে পড়ে তাছকিয়া তখন বললেন হুজুর আমার বাবা-মা বাসায় নাই আপনি পরে আসেন বেলাল হোসেন তখন দরজা ধাক্কা দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করেন। ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে তাছকিয়া কে একা পেয়ে একাধিকবার ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়।

শিক্ষক বেলাল হোসাইন ও আব্দুল মাবুদ বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ নতুন নয়। তালিমুল কোরআন মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা তৈয়ব হুজুরকে ভুক্তভোগী পরিবারটি মৌখিকভাবে একাধিকবার অভিযোগ করে আসছেন বলে জানান ভুক্তভোগীর বাবা আইয়ুব আলী চৌধুরী। বর্তমানে চরম আতঙ্কে জীবন যাপন করছেন ভুক্তভোগী পরিবারটি।

সর্বশেষ খবর

আরো খবর

আজকের সংবাদের প্রচারিত কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by GrameenFox

Optimized with PageSpeed Ninja