logo

বুধবার ২৭শে মে, ২০২০ - ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ - ৩রা শাওয়াল, ১৪৪১

মহানগর গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগের অভিযানঃ অস্ত্র ও কার্তুজ সহ ০১ জন গ্রেফতার
১৭ জানুয়ারি, ২০২০

বাহাদুর আহম্মেদ (৩৬), পিতা-মৃত নাছির উদ্দিন আহম্মেদ, মাতা-মৃত জাহানারা বেগম, সাং- ৫৫নং আয়েশা মঞ্জিল, বান্ডেল রোড, মেনেকা স্কুলের সামনে, থানা-কোতোয়ালী, জেলা-চট্টগ্রাম।

ঘটনার সংক্ষিপ্ত বিবরন এই যে, মহানগর এলাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ও ছিনতাই প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে উপ-পুলিশ কমিশনার, মহানগর গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ জনাব মোঃ মিজানুর রহমান মহোদয়ের নির্দেশক্রমে, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, মহানগর গোয়েন্দা বিভাগ (দক্ষিণ) জনাব আসিফ মহিউদ্দীন মহোদয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে, সহকারী পুলিশ কমিশনার(ডিবি-দক্ষিন) জনাব পিযুষ চন্দ্র দাস এর নির্দেশনায় বিশেষ টিম-০২ এর পুলিশ পরিদর্শক জনাব মোঃ আজিজ আহমেদ এবং পুলিশ পরিদর্শক জনাব মোহাম্মদ হোছাইন এর নেতৃত্বে এসআই/মোঃ রেজাউল করিম চৌধুরী, এসআই/সাইদুর রহমান, এএসআই/মোঃ সাইফুল আবেদীন ও সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করাকালীন সিএমপির কোতোয়ালী থানাধীন মেরিন ড্রাইভ রোডস্থ পুরাতন ফিশারী ঘাটের মুখে ব্রীজের উপর হতে ১৬/০১/২০২০ ইং তারিখ সন্ধ্যা ১৮:২০ ঘটিকায় ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থানকালে আসামী ১। বাহাদুর আহম্মেদ (৩৬)কে ০১ (এক) টি দেশীয় তৈরী এলজি এবং ০১ (এক) রাউন্ড কার্তুজ সহ গ্রেপ্তার করে।

আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে ছিনতাই করার উদ্দেশ্যে উল্লেখিত জব্দকৃত অস্ত্র ও কার্তুজ নিয়া ঘটনাস্থলে অবস্থান করিতেছিল। আসামী আইন প্রয়োগকারী সংস্থার চোখ ফাঁকি দিয়ে ঘটনাস্থল সহ চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন স্থানে আগেও কয়েক বার ছিনতাই করিয়াছে বলে জানায়। সে চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত এবং ধৃত আসামী একজন কুখ্যাত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী বলিয়া এলাকায় ব্যাপক জনশ্রুতি রহিয়াছে। উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানায় আরো ০৭(সাত)টি ছিনতাই দস্যূতা এবং অস্ত্র মামলা রয়েছে। পরবর্তীতে উক্ত ঘটনার বিষয়ে সিএমপির কোতোয়ালী থানায় মামলা রুজু করা হয়।

আরো খবর

আজকের সংবাদের প্রচারিত কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by GrameenFox